খেলাধুলা

ফেনীর ছেলে সাইফ উদ্দিনের সামনে ‘দুই’ চ্যালেঞ্জ

Saifuddin-news-bg20160715175724

অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খোলস ছাড়তেই ‍অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের জায়গা হয়েছে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ক্যাম্পে। রোববার (১৭ জুলাই) থেকে মিরপুরে শুরু হচ্ছে সম্ভাবনাময় ২৫ ক্রিকেটারকে নিয়ে এই ক্যাম্প।

তার দু’দিন পর ২০ জুলাই থেকে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সন্দেহজনক বোলিং  অ্যাকশনের ‍দায়ে অভিযুক্ত ১০ বোলারকে নিয়ে কাজ শুরু করবে বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটি। সন্দেহজনক অ্যাকশনের তালিকায় রয়েছেন ক্রিকেট কোচিং স্কুলের পেসার সাইফ উদ্দিনও। তাই এইচপি ক্যাম্পের সঙ্গে সাইফ উদ্দিনের ভাবনায় থাকছে বোলিং অ্যাকশনের কথাও।

তবে অ্যাকশন নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত নন ১৯ বছরের এ তরুণ। শুক্রবার (১৫ জুলাই) মিরপুরের একাডেমি মাঠে ফিটনেস অনুশীলন সেরে সাইফ উদ্দিন জানান, ‘আমি সন্দেহের মধ্যে আছি। তবে এখনো তা প্রমাণিত হয়নি। আমার বোলিংয়ের ফুটেজ কমিটি দেখবে। যদি কোনো সমস্যা থাকে তাহলেই কেবল তারা কাজ করবেন। আশা করি কোনো সমস্যা হবে না। তবে এটা একটা চ্যালেঞ্জ।’

নেতিবাচক ভাবনায় আচ্ছন্ন না হয়ে এখন কেবল এইচপি নিয়ে ভাবতে চান সাইফ উদ্দিন। ৯ সপ্তাহের ক্যাম্পে অভিজ্ঞ কোচদের কাছ থেকে শিখতে চান অনেক কিছু, ‘ইনজুরির কারণে প্রিমিয়ার লিগে সব ম্যাচ খেলতে পারিনি। পারফরম্যান্স সেভাবে দেখাতে পারিনি। তারপরও বিসিবি আমাকে এইচপিতে সুযোগ দিয়েছে, চেষ্টা করবো যতটা শিখে নেয়া যায়। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে হাই লেভেলের কোচ থাকবেন, তাদের কাছ থেকে যতটা পারি শেখার চেষ্টা করব।’

‘অনূর্ধ্ব-১৯ এর গণ্ডি পেরিয়ে আমার টার্গেট ছিল এইচপিতে সুযোগ পাওয়া, এখানে ভালো কিছু করার ইচ্ছা আছে। সিনিয়র প্লেয়াররাও আছেন। সাকলাইন সজীব, রনি (আবু হায়দার) ভাইরা আছেন। প্রিমিয়ার লিগের টপ পারফরমাররাও আছেন। ওনাদের কাছ থেকে যতটা অভিজ্ঞতা শেয়ার করা যায়।  অনূর্ধ্ব-১৯ একটা লেভেল ছিল। এটা আরও বড় একটা লেভেল। চেষ্টা থাকবে ভালো কিছু শেখা এবং নিজেকে প্রমান করা।’-যোগ করেন সাইফু্দ্দিন।

এইচপি ক্যাম্পের ক্রিকেটাররা আগামীকাল বিকাল ৪টায় মিরপুরের একাডেমি ভবনে রিপোর্ট করবেন। ১৭ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া এইচপি ক্যাম্পের প্রথম কয়েক দিন ক্রিকেটাররা পাবেন না হেড কোচ সিমন হেলমটকে। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএলে) একটি দলের কোচ হিসেবে কাজ করছেন তিনি। আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে পাওয়া যাবে তাকে।

ক্যাম্প তত্ত্বাবধান করবেন বিসিবির গেম ডেভলপমেন্ট কমিটির ন্যাশনাল ম্যানেজার নাজমুল আবেদিন ফাহিম। থাকছেন হেলমটের সহকারী এইচপির স্ট্রেন্থ এন্ড কন্ডিশনিং কোচ কোরে বকিং। সঙ্গে এইচপির কোচিং প্যানেলে যুক্ত করা হয়েছে পাঁচ দেশি কোচকে। পেস বোলিং বিভাগে কাজ করবেন মিজানুর রহমান বাবুল। ব্যাটিংয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন জাফরুল এহসান। স্পিন বোলিং কোচ হিসেবে কাজ করবেন ওয়াহিদুল হক গনি।  ফিল্ডিংয়ে কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন সোহেল ইসলাম।  উইকেটকিপিং কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন গোলাম মুর্তজা।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *