অর্থনীতি কৃষি

ফেনীতে ১ লাখ ৭৮ হাজার মেট্রিকটন চাল উৎপাদনের সম্ভাবনা

rice paddy field

চলতি মৌসূমে ফেনীতে ১ লাখ ৭৭ হাজার ৭২৭ মেট্রিকটন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে ইতিমধ্যে জেলার ৬ উপজেলায় অন্তত ৬৮ হাজার ১৫০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ করা হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

জেলা কৃষি সম্প্রসারন অফিস জানায়, চলতি মৌসূমে ফেনীতে নির্ধারিত উৎপাদনের লক্ষমাত্রা পূরণ করতে ব্যাপক হারে হাইব্রীড জাতের আমন ও স্থানীয় জাতের আমন ধানের চাষ করা হয়েছে। খাদ্যে স্বনির্ভর এ জেলায় এবার ৬১ হাজার ৮ হেক্টর জমিতে হাইব্রীড জাতের আমন চাষ করা হয়েছে। এখান থেকে চাল উৎপাদন হবে প্রায় ১ লাখ ৬৫ হাজার ৯৪২ মেট্টিক টন। এছাড়াও স্থানীয় জাতের আমন চাষ করা হয়েছে ৭ হাজার ১৪২ হেক্টর জমিতে। অন্য কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এ জাতের আমন থেকে চাল উৎপাদন হবে প্রায় ১১ হাজার ৭৮৫ মেট্রিক টন।

সূত্র মতে, ফেনী সদর উপজেলার ১৬ হাজার ৪৭৫ হেক্টর জমিতে থেকে ৪৪ হাজার ৬৭৪ মেট্টিক টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া ছাগলনাইয়া উপজেলায় ৯ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে ২৫ হাজার ১৬০ মেট্টিক টন। ফুলগাজী উপজেলায় ৬ হাজার ৬৭০ হেক্টর জমিতে ১৮ হাজার ১২৬ মেট্টিক টন। পরশুরাম উপজেলায় ৬ হাজার হেক্টর জমি থেকে ১৬ হাজার ৩০৭ মেট্টিক টন। দাগনভূঞা উপজেলায় ৯ হাজার ১৯০ হেক্টর জমি থেকে ২৪ হাজার ৫২৬ মেট্টিক টন। সোনাগাজী উপজেলায় ২০ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমি থেকে চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে ৪৮ হাজার ৯৪৩ মেট্টিক টন।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আবদুল মতিন জানান, চাল উৎপাদনে সয়ং সম্পূর্ণ ফেনী জেলা। এখানে সব সময়ই জাতীয় পর্যায়ে বেধে দেয়া লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি উৎপাদন হয়। এবারও চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ১লাখ ৭৪ হাজার ৫শ মেট্টিক টন হলেও চাষাবাদ অনুযায়ী ফেনীতে ১ লাখ ৭৭ হাজার ৭২৭ মেট্টিক টন চাল উৎপাদন হতে পারে বলে মনে করেন কৃষি বিভাগের এ কর্মকর্তা।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *